1. momin02@gmail.com : MD Momin : MD Momin
  2. admin@upokulbarta.com : upokulbarta : Md Shohel
  3. monsur.gk9890@gmail.com : MD Monsur : MD Monsur
ভোলায় বেতন বৈষম্য নিরসনের দাবিতে স্বাস্থ্য সহকারীদের কর্ম বিরতি ও অবস্থান কর্মসূচী পালন | Upokul Barta
নোটিশঃ
উপকূলের  জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল উপকূল বার্তায় আপনাকে স্বাগতম
সর্বশেষ সংবাদ
চরফ্যাশন পৌর সভায় চলছে অনির্ধারিত টোল আদায় স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের দায়ে প্রতিবেশীর যাবজ্জীবন. কোস্ট ট্রাস্টের সহায়তায় জলবায়ু ফোরামের উদ্যোগে ”মাস্ক নাই তো সেবা নাই” ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠিত এনজিও কর্মীদের চাকুরির নিরাপত্তা ও বেতন কাঠামো খুবই দুর্বল লালমোহনে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জমি দখলের পায়তারা।। মারপিটে আহত ১ লালমোহনে আনন্দ টিভির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যানের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত বিদেশী চ্যানেল আর অপসংস্কৃতির আগ্রাসন রোধে এশিয়ান টেলিভিশন ভূমিকা রাখছে- এমপি শাওন বরগুনার রিফাত হত্যা মামলার সাজাপ্রাপ্ত ৩ আসামির জামিন। আজ আদর্শ মানব কল্যাণ সোসাইটির চেয়ারম্যানের ৪৯তম জন্মবার্ষিকী মঠবাড়িয়ার দাউদখালী ইউনিয়নে দরিদ্র মেধাবী শিক্ষার্থীদের মাঝে কম্বল বিতরণ

ভোলায় বেতন বৈষম্য নিরসনের দাবিতে স্বাস্থ্য সহকারীদের কর্ম বিরতি ও অবস্থান কর্মসূচী পালন

  • প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর, ২০২০
  • ৬৩ বার পঠিত

ভোলা প্রতিনিধি।। নিয়োগবিধি সংশোধন করে বেতন বৈষম্য নিরসনের দাবিতে ভোলায় কর্মবিরতি ও অবস্থান কর্মসূচী পালন করেছে বাংলাদেশ হেলথ অ্যাসিস্ট্যান্ট অ্যাসোসিয়েশন (বিএইসএএ) ভোলা জেলা শাখা।

আজ সকালে সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার কার্যালয় সামনে স্বাস্থ্য পরিদর্শকদের ১১, সহকারী স্বাস্থ্য পরিদর্শকদের ১২ ও স্বাস্থ্য সহকারীদের জন্য ১৩তম গ্রেড প্রদানের মাধ্যমে বেতন বৈষম্য নিরসনের দাবি জানিয়ে বাংলাদেশ হেলথ অ্যাসিস্ট্যান্ট অ্যাসোসিয়েশন ভোলা জেলা শাখা কর্মবিরতি ও অবস্থান কর্মসূচী পালন করে।

এসময় বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ হেলথ অ্যাসিস্ট্যান্ট অ্যাসোসিয়েশন ভোলা জেলা দাবি বাস্তবায়ন কমিটির  আহবায়ক মোঃ জাহিদ হাসান। এ সময় উপস্তিত ছিলেন, ভোলা জেলা দাবি বাস্তবায়ন কমিটির  সদস্য সচিব মোঃ কামাল উদ্দিন, সভাপতি শাহানাজ বেগম, সাধারন সম্পাদক মোঃ হোসেন, স্বাস্থ্য পরিদর্শক মোঃ আনোয়ার কামাল, স্বাস্থ্য পরিদর্শক দিলরুবা সুলতানা, মোঃ ফিরোজ আলম, মোঃ রফিকুল ইসলাম,  স্বাস্থ্য পরিদর্শক সমিতির সভাপতি নাজিম উদ্দিন, সদস্য উওম কুমার ঘোষ সহ ভোলা জেলার আরো অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

কর্মবিরিত ও অবস্থান কর্মসূচী পালনের সময় বক্তারা বলেন, সত্তরের দশকে পরীক্ষামূলকভাবে এসব স্বাস্থ্য সহকারীদের শুধু বসন্ত ও ম্যালেরিয়া রোগ নিয়ন্ত্রণের দায়িত্ব এককভাবে দেওয়া হয়। স্বাস্থ্য সহকারীদের ঐকান্তিক প্রচেষ্টার ফলে দেশ থেকে বসন্ত ও ম্যালেরিয়া রোগ নির্মূল হয়েছে। পরবর্তী সময়ে ১৯৭৯ সালের ৭ এপ্রিল চালু করা হয় সম্প্রসারিত টিকাদান কর্মসূচি (ইপিআই)। এ কর্মসূচির আওতায় দেশের ১ লাখ ২০ হাজার আউটরিচ রুটিন টিকাদান কেন্দ্রের কর্মসূচি এককভাবে স্বাস্থ্য সহকারীদের ওপর ন্যস্ত করা হয়। টিকাদান কর্মসূচির মাধ্যমে স্বাস্থ্য সহকারীরা বর্তমানে ১০টি মারাত্মক সংক্রামিত রোগের (শিশুদের যক্ষ্মা, পোলিও, ধনুষ্টংকার, হুপিং কাশি, ডিপথেরিয়া, হেপাটাইটিস-বি, হিমোফাইলাস ইনফ্লুয়েঞ্জা, নিউমোনিয়া ও হামে-রুবেলা) টিকা দিয়ে থাকেন। আমাদের স্বাস্থ্য সহকারীরাই ২০১৩ সালে ২৫ জানুয়ারি ৯ মাস থেকে ১৫ বছরের কম বয়সী ৫ কোটি ২০ লাখ শিশুকে এক ডোজ হাম-রুবেলা টিকা সফলভাবে দিয়েছিলেন।

বক্ত্যরা আরো বলেন, স্বাস্থ্য পরিদর্শক, সহকারী স্বাস্থ্য পরিদর্শক ও স্বাস্থ্য সহকারীদের এই কর্মবিরতির ফলে আগামী ৫ ডিসেম্বর হাম-রুবেলা ক্যাম্পেইনসহ দেশের এক লাখ ২০ হাজার আউটরিচ রুটিন টিকাদান কর্মসূচি বন্ধ থাকবে।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস

সর্বমোট

আক্রান্ত
৫২৯,০৩১
সুস্থ
৪৭৩,৮৫৫
মৃত্যু
৭,৯৪২
সূত্র: আইইডিসিআর

সর্বশেষ

আক্রান্ত
৭০২
সুস্থ
৬৮২
মৃত্যু
২০
স্পন্সর: একতা হোস্ট

শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো খবর
© All rights reserved upokulbarta.com © 2020
Development BY MD Rasel Mahmud